সংস্কৃতি ও বিনোদন

‘নারী’র বর্ষপূর্তিতে আলোকিত পাঁচ নারীকে সম্মাননা

nari
নিউইয়র্ক থেকে প্রকাশিত ‘নারী’ ম্যাগাজিনের প্রথম বর্ষ পূর্তি অনুষ্ঠান জ্যাকসন হাইটসের জুইশ সেন্টার মিলনায়তনে গত ২৮ অক্টোবর আড়ম্বরপূর্ণ এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে পালিত হয়েছে।

অনুষ্ঠানে নিউইয়র্কসহ যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে আসা সাংস্কৃতিক, সামাজিক, রাজনৈতিক ও সুশীল সমাজের বিশিষ্ট ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন। দিঠি হাসনাতের গাওয়া মঙ্গল সংগীত দিয়ে শুরু হয় অনুষ্ঠান। এরপর জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ‘নারী’ কবিতা শোনান নিউইয়র্কের জনপ্রিয় ছড়াকার মঞ্জুর কাদের ও সাবিনা শারমিন নিহার। বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘চিত্রাঙ্গদা’ শোনান অনুষ্ঠানের উপস্থাপক লুবনা কাইজার।

সম্পাদক পপি চৌধুরী স্বাগত বক্তব্যে ‘নারী’ প্রকাশের উদ্যোগের কথা তুলে ধরে পত্রিকা প্রকাশে যারা পৃষ্ঠপোষকতা এবং বিজ্ঞাপন দিয়ে সহযোগিতা করছেন তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন ‘নারী’র প্রকাশক তপন চৌধুরী।

এরপর গত এক বছরে প্রয়াত বাংলাসাহিত্যের সব্যসাচী লেখক সৈয়দ শামসুল হক, কবি শহীদ কাদরী, ‘বেগম’ সম্পাদক নূরজাহান বেগম, কবি রফিক আজাদ, ঔপন্যাসিক মহাশ্বেতা দেবী ও সুচিত্রা ভট্টাচার্যের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে তাদের রচনা থেকে অংশবিশেষ পাঠ করা হয়। পাঠে অংশ নেন লুৎফুন নাহার লতা, গোপন সাহা, শুক্লা রায়, ধনঞ্জয় সাহা, নাজনীন সীমন, ক্লারা রোজারিও, নাজনীন মামুন এবং আশরাফুন্নাহার লিউজা।

অনুষ্ঠানে সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রে অসামান্য অবদান রাখা পাঁচ বাংলাদেশি নারীকে সম্মাননা দেওয়া হয়। পাশাপাশি আরও চার নারীকে তাদের বিশেষ কর্মের জন্য স্বীকৃতি জানানো হয়। সম্মাননা পাওয়া নারীরা হলেন, সাংবাদিক-সমাজসেবক নুরজাহান কাদের, লেখক-সাংবাদিক দিলারা হাশেম, লেখক-সমাজসেবক নূরজাহান বোস, নাট্যজন রেখা আহমেদ এবং শিক্ষকও সমাজসেবক তাহমিনা জামান। স্বীকৃতি প্রাপ্ত নারীরা হলেন, লিজি রহমান, আলেয়া চৌধুরী, রুবাইয়া রহমান এবং রোকেয়া আক্তার।

সম্মাননা পাওয়া নারীদের জীবনবৃত্তান্ত তুলে ধরেন বাংলা একাডেমি পুরস্কার প্রাপ্ত লেখক এবং নারীর উপদেষ্টা সম্পাদক পূরবী বসু, ভয়েস অব আমেরিকার বাংলা বিভাগের প্রধান এবং নারীর প্রধান উপদেষ্টা রোকেয়া হায়দার, নারীর উপদেষ্টা সিনিয়র ল কনসালট্যান্ট নাসরিন আহমেদ, লেখক লিজি রহমান এবং সাংবাদিক মনিজা রহমান। সম্মাননা পাওয়া নারীদের হাতে সম্মাননা স্মারক তুলে দেন বাংলাদেশ উদীচী কেন্দ্রীয় সভাপতি কামাল লোহানী এবং একুশে পদকপ্রাপ্ত লেখক জ্যোতি প্রকাশ দত্ত।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, অ্যাটর্নি অশোক কর্মকার, প্রবীণ সাংবাদিক সৈয়দ মোহাম্মদ উল্লাহ দম্পতি, বাংলাদেশ সোসাইটির সাবেক সভাপতি নার্গিস আহমেদ, খানস টিউটোরিয়াল-এর পরিচালক এবং নারী’র উপদেষ্টা নাঈমা খান, লেখক বেলাল বেগ, কবি শামস আল মমিন, লেখক শাহাব আহমেদ, লেখক আবু রায়হান দম্পতি, কবি তমিজ উদ্দীন লোদি, কবি সালেম সুলেরী, লেখক নাসরিন চৌধুরী, কবি মিশুক সেলিম, লেখক আদনান সৈয়দ, লেখক এবিএম সালেহ উদ্দিন, লেখক জেসমিন আরা দম্পতি, কণ্ঠশিল্পী রোজী আকতার, স্পেক ট্রাম আইটি সার্ভিসের কর্ণধার এবং চার্চ ম্যাগ ডোনাল্ড বাংলাদেশি বিজনেস অ্যাসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি আব্দুর রব চৌধুরী দম্পতি, বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্র ইউএসএ’র পরিচালক মাহফুজা বেগম, রংপুর জেলা অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট রাজু আহমেদ দম্পতি, গ্রেটার খুলনা সমিতির সাধারণ সম্পাদক মুরারি মোহন দাস ও সহসভাপতি ফারুকুল ইসলাম দম্পতি, রাজনীতিবিদ ও লেখক শামসুদ্দিন আজাদ, প্রগ্রেসিভ ফোরামের সভাপতি খোরশেদুল ইসলাম, জাতীয় পার্টির সাবেক সাংসদ কবি লিয়াকত আলী দম্পতি, ক্লাব সনম এবং সনম টিভির পরিচালক খন্দকার কাদের, মিসেস তৌফিক কাদের, নারী নেত্রী অধ্যাপক হুসনে আরা বেগম, কমিউনিটি অ্যাকটিভিস্ট আব্দুস শহীদ, বাংলাদেশ হিউম্যান রাইটসের নিউইয়র্ক শাখার প্রেসিডেন্ট শরিফ লস্কর, সাহিত্য একাডেমির পরিচালক মোশাররফ হোসেন, গাঙচিল সাহিত্য একাডেমির সভাপতি খান শওকত, সেতু’র প্রেসিডেন্ট হাসান মাহমুদ দম্পতি, বাফা’র প্রেসিডেন্ট ফরিদা ইয়াসমিন, বাংলাদেশ সোসাইটির সাংস্কৃতিক সম্পাদক মণিকা রায়, আভা’র প্রেসিডেন্ট মেহের চৌধুরী, তারার আলো’র প্রেসিডেন্ট মিনা ইসলাম, আবৃত্তিকার মিথুন আহমেদ, কবি রিমি রুম্মান, মিলি সুলতানা, রীতা হাজেরা, শামীম আরা আফিয়া, কবিতা হোসাইন, ছন্দা বিনতে সুলতানা, কণ্ঠশিল্পী সবিতা দাস, সুরকার ইশতিয়াক রূপু আহমেদ, লেখক স্বপন বসু, মাকসুদা আহমেদসহ প্রমুখ।

আপনার মন্তব্য জানান