ফ্লোরিডা

বাংলাদেশি সামা ডেমোক্র্যাট ডেলিগেট নির্বাচিত

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্রেটিক পার্টির মনোনয়নপ্রত্যাশী বার্নি স্যান্ডার্সের সঙ্গে সামা নুজুমা।
মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্রেটিক পার্টির মনোনয়নপ্রত্যাশী বার্নি স্যান্ডার্সের সঙ্গে সামা নুজুমা।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্রেটিক পার্টির মনোনয়নপ্রত্যাশী বার্নি স্যান্ডার্সের সঙ্গে সামা নুজুমা।

৭ মে শনিবার গ্রাস রুট ডেমোক্র্যাট ফ্লোরিডা ২৭ কংগ্রেসনাল ডিস্ট্রিক্টের কংগ্রেসনাল ডিস্ট্রিক্ট ককাসের ১৩৫ জন ডেমোক্র্যাট ডেলিগেটদের মধ্যে প্রথম বাংলাদেশি তথা প্রথম মুসলিম হিসেবে সামা উ নুজুমা বিপুল ভোটে ডিএনসির ডেলিগেট নির্বাচিত হয়েছেন। সামাকে ডেমোক্র্যাটের ডেলিগেট নির্বাচিত করার জন্য ওরলান্ডো ও কিসিমির প্রবাসী বাংলাদেশি এক হয়ে কাজ করেন। ৭ মে সকাল থেকে প্রবাসীরা কিসিমির লাইব্রেরিতে প্রথম বাংলাদেশি সামাকে ভোট দেওয়ার জন্য যান।
সামা নুজুমা ডেমোক্রেটিক পার্টির মনোনয়নপ্রত্যাশী বার্নি স্যান্ডার্সের জন্য নির্বাচিত হয়েছেন। বার্নি স্যান্ডার্সের ডেলিগেট হওয়ার জন্য ২০ প্রার্থী দাঁড়ান। একজন নারী ও একজন পুরুষ ডেলিগেটের জন্য। অপর দিকে হিলারি ক্লিনটনের জন্য ১৪ প্রার্থীর মধ্যে থেকে দুজন পুরুষ ও একজন নারী নির্বাচিত হন। তুমুল প্রতিযোগিতার এই ডেলিগেট নির্বাচনে সামা প্রথম বাংলাদেশি, যিনি নির্বাচন করে জয়ী হয়েছেন। সামা আগামী ৪ বছরের জন্য ডেমোক্রেটিক পার্টির ডেলিগেট হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন। সামা নুজুমা ২০১৬ সালের ফ্লোরিডা ডেমোক্রেটিক পার্টির ডেলিগেট হয়ে ন্যাশনাল কনভেনশনে ফিলাডেলফিয়ায় ২৫ থেকে ২৮ জুলাই প্রতিনিধিত্ব করবেন।
সামা ফ্লোরিডার ১৩৫ জন ডেলিগেটের মধ্যে অন্যতম। বার্নি স্যান্ডার্স তাঁকে স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে একজন নারী মুসলিম হিসেবে প্রাথমিকভাবে নির্বাচন করেছিলেন। এরপর তিনি ডেমোক্র্যাটদের ভোটে নির্বাচিত হন। খুব কম সময়ে সামা ডেমোক্রেটিক পার্টিতে জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন। তিনি মুসলিম ডেমোক্র্যাট ককাসের ভাইস চেয়ার হিসেবে কিসিমি চ্যাপ্টারে দায়িত্ব পালন করছেন। সামা কিসিমির কমিউনিটি অ্যাকটিভিস্ট শামসুদ তোহার ভাগনি।
সামা ডেলিগেট নির্বাচিত হওয়ায় মূলধারার রাজনীতিতে মুসলিম নারীদের অংশগ্রহণ আরও বাড়বে বলে আশা করছেন কিসিমি ডেমোক্র্যাট ও মুসলিম ডেমোক্র্যাট ককাসের নেতারা। ফ্লোরিডা মুসলিম ডেমোক্র্যাট ককাস বেশ জোরালো ভূমিকা রাখছে স্থানীয় রাজনীতিতে। মূলধারার রাজনীতিতে সামাসহ অনেক মুসলিম নারী-পুরুষ ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করছেন। বাংলাদেশি দুজন প্রবাসী কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব ডেমোক্র্যাট ডেলিগেটের নির্বাচনে অল্প ভোটের ব্যবধানে হেরে গেছেন।

আপনার মন্তব্য জানান