ওয়াশিংটন

ওয়াশিংটনে ঈদুল আজহা উদ্‌যাপন

atl1ধর্মীয় আমেজ আর উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্যে দিয়ে সোমবার (১২ সেপ্টেম্বর) ওয়াশিংটনসহ যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন শহরে প্রবাসী বাংলাদেশিরা ঈদুল আজহা উদ্‌যাপন করেছেন। সকাল হতেই ওয়াশিংটনপ্রবাসীরা সপরিবারে নিকটস্থ মসজিদে গিয়ে ঈদের নামাজ আদায় করেন। ওয়াশিংটন ডিসি ছাড়াও পার্শ্ববর্তী বিভিন্ন শহরের মসজিদে পবিত্র ঈদুল আজহার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। বৃহত্তর ওয়াশিংটনের উডব্রিজ, স্প্রিংফিল্ড, লর্টন, আলেকজান্দ্রিয়া, ম্যানাসাস, বেথেসডা ও বাল্টিমোরে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। ভার্জিনিয়ার আর্লিংটনের বায়তুল মোকাররম মসজিদে ঈদুল আজহার তিনটি জামাতের আয়োজন করা হয়। এখানে ইমাম মাওলানা কৌশিক আহমেদের পরিচালনায় জামাতগুলো সকাল ৮টা, ৯টা ও ১০টায় অনুষ্ঠিত হয়। নামাজ আদায় শেষে প্রবাসীরা মেরিল্যান্ড অঙ্গরাজ্যের ক্লিনটন, ভার্জিনিয়ার ম্যানাসাস, পেনসিলভানিয়াসহ বিভিন্ন ফার্ম বা নির্দিষ্ট স্থানে গিয়ে পশু জবাই করেন।
মেরিল্যান্ডের ক্লিনটনের খোলা উন্মুক্ত মাঠে প্রবাসীদের ঢল নামে সবচেয়ে বেশি। শত শত প্রবাসী সপরিবারে নিকটস্থ মসজিদে ঈদের নামাজ আদায় শেষে সরাসরি কোরবানির মাঠে চলে যান। সেখানে পছন্দমতো গরু ছাগল ক্রয় করে সকলেই মিলে ধর্মীয় পদ্ধতিতে কোরবানি দেন। ক্লিনটনের নিকটস্থ ফোর্ট ওয়াশিংটনেও প্রবাসীদের ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। অনেকে কোরবানির মাঠেই রান্নার আয়োজন করেন। দেশীয় আয়োজনে পশু জবাই শেষে কোরবানির মাঠে রান্না করে পরিবার, আত্মীয়স্বজন ও বন্ধু বান্ধব মিলে কোরবানির মাংস দিয়ে ঈদের খাবার গ্রহণ করেন।
atl2ঈদুল আজহা উপলক্ষে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ও ফাস্ট লেডি মিশেল ওবামা বিশ্বের মুসলমানদের ঈদের শুভেচ্ছা জানান। রোববার এক শুভেচ্ছা বার্তায় বারাক ওবামা ও তাঁর স্ত্রী হজযাত্রীদেরও অভিনন্দন জানান। তারা বলেন, হজ হচ্ছে বিভিন্ন দেশ ও সংস্কৃতির লাখো মানুষের একত্রে প্রার্থনা এবং গভীর বিশ্বাস প্রকাশের মাধ্যমে সৃষ্টিকর্তার নৈকট্য ও সন্তুষ্টি লাভ করা।
যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরিও বিশ্বের মুসলমানদের ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। এক শুভেচ্ছা বার্তায় তিনি বলেন, ঈদুল আজহা হলো একটি বিশেষ মুহূর্ত যা সকল বিশ্বাসের মধ্যে সেবা, নিঃস্বার্থপরায়ণতা, সহমর্মিতা ও অপরের প্রতি সেবার মূল্যবোধ সৃষ্টি করে। এ সকল মূল্যবোধ চর্চা ও এর প্রতিফলনের চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ আর কিছু হতে পারে না।

125 মন্তব্য

আপনার মন্তব্য জানান