ওয়াশিংটন

ওয়াশিংটনে সশস্ত্র বাহিনী দিবস উদ্‌যাপন

sb
উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী ওয়াশিংটনে বাংলাদেশ দূতাবাসে ৪৫তম সশস্ত্র বাহিনী দিবস পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে গত বৃহস্পতিবার (১৭ নভেম্বর) বাংলাদেশ দূতাবাসের বঙ্গবন্ধু অডিটোরিয়ামে এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের বিমানবাহিনীর ডেপুটি চিফ অব স্টাফ লেফটেন্যান্ট জেনারেল জিনা এম গ্রুসো। স্বাগত বক্তব্য দেন যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জিয়াউদ্দিন ও দূতাবাসের প্রতিরক্ষা অ্যাটাচে ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ শামসুজ্জামান। অনুষ্ঠানের শুরুতেই বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা হয়।
জিনা এম গ্রুসো তার শুভেচ্ছা বক্তব্যে বলেন, যুক্তরাষ্ট্র ও বাংলাদেশের মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বৃদ্ধি দিন দিন বৃদ্ধি পেয়েছে। দুর্যোগ মোকাবিলায় দুই দেশ যৌথ সামরিক মহড়াসহ বিভিন্ন পর্যায়ে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের মধ্য দিয়ে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করে যাচ্ছে। হারিকেন ক্যাটরিনার সময় বাংলাদেশ সরকার ও বাংলাদেশ সামরিক বাহিনীর সদস্যদের সহযোগিতার কথা উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, যুক্তরাষ্ট্র ও বাংলাদেশের মধ্যে সামরিক ক্ষেত্রেই নয়, দুই দেশের জনগণের মধ্যেও সুসম্পর্ক বজায় আছে, যা দিনে দিনে বৃদ্ধি পাচ্ছে।
মোহাম্মদ জিয়াউদ্দিন তাঁর স্বাগত বক্তব্যে সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যসহ বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে যাঁরা শহীদ হয়েছেন তাঁদের সকলের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন। এ ছাড়া স্বাধীন বাংলাদেশে একটি আধুনিক সশস্ত্র বাহিনী গড়ে তুলতে অবিস্মরণীয় অবদানের জন্য তিনি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে গভীর শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করেন। তিনি বলেন, বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনী প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবিলা, অবকাঠামোগত উন্নয়ন ও জাতীয় পরিচয়পত্র তৈরিতে বিশেষ ভূমিকা পালন করেছে। তিনি আরও উল্লেখ করেন বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যরা জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে অগ্রণী ভূমিকা পালনের মাধ্যমে বিদেশে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি বহুলাংশে উজ্জ্বল করেছে।
অনুষ্ঠানে যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত, দূতাবাসের প্রতিরক্ষা অ্যাটাচে, মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তর ও পেন্টাগনের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা, মিডিয়া প্রতিনিধি, ওয়াশিংটন ও পার্শ্ববর্তী এলাকায় বসবাসরত বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা, প্রবাসী বাংলাদেশি ও বাংলাদেশ দূতাবাসের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

আপনার মন্তব্য জানান