লস এঞ্জেলেস হাইলাইটস

৫ মাসের মাথায় কৃষ্ণাঙ্গ হত্যার আরেক ভিডিও, বরখাস্ত ৭ পুলিশ

যুক্তরাষ্ট্রে পুলিশের গুলি বা নির্যাতনে কৃষ্ণাঙ্গ মৃত্যুর ঘটনা যেন থামছেই না। এ ধরনের ঘটনা অতীতে ঘটলেও সাম্প্রতিক সময়ে ব্যাপক আলোচনা ও বিক্ষোভ হচ্ছে এ নিয়ে। গত কয়েক মাসে জর্জ ফ্লয়েড থেকে শুরু করে ডিজন কিজ্জি পর্যন্ত বেশ কয়েকজন কৃষ্ণাঙ্গ প্রাণহানি বা গুরুতর জখমের শিকার হয়েছেন মার্কিন পুলিশের হাতে।

এ তালিকায় যুক্ত হয়েছেন আরও একজন। হত্যার ঘটনার পাঁচ মাস পর প্রকাশ্যে এসেছে আরেক কৃষ্ণাঙ্গ হত্যার ভিডিও। ড্যানিয়েল প্রুড (৪১) নামে এক কৃষ্ণাঙ্গকে শ্বাস রোধে হত্যার নতুন একটি ভিডিও নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়েছে আমেরিকায়। পুলিশের এই নির্মম অত্যাচারের ভিডিও জনসমক্ষে আনলো ড্যানিয়েল প্রুডের পরিবার।

বৃহস্পতিবার ড্যানিয়েল প্রুডের পরিবার এক সংবাদ সম্মেলনে এই ভিডিও প্রকাশ করেছে। তারা বলেছে, গত ২৩ মার্চ হঠাৎ নগ্ন হয়ে রাস্তায় বেরিয়ে পড়েন ড্যানিয়েল। সে সময় পরিবারের পক্ষ থেকে পুলিশকে ফোন করা হয়। পুলিশ এসে ড্যানিয়েলকে হাতকড়া পরিয়ে দীর্ঘ সময় ফুটপাতে বসিয়ে রাখে।

ড্যানিয়েল এর প্রতিবাদ করতেই এক শ্বেতাঙ্গ পুলিশ তার মাথায় সাদা কাপড়ের ঢাকনা পরিয়ে দেয়। এরপর তার মুখ রাস্তায় চেপে ধরে রাখে। এর ফলে শ্বাস আটকে জ্ঞান হারান ড্যানিয়েল। হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয় তাকে। ৩০ মার্চ লাইফ সাপোর্ট খুলে দেয়ার পর মারা যান ড্যানিয়েল প্রুড। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার স্থানীয় মেয়র সাত পুলিশ কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করেছেন।

গত সোমবারই লস অ্যাঞ্জেলসে পুলিশের গুলিতে নিহত হন ডিজন কিজ্জি নামের এক কৃষ্ণাঙ্গ। ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারান ২৯ বছর বয়সী এ যুবক। এরপর ঘটনাস্থলে শতাধিক লোক সমবেত হয়ে বিক্ষোভ শুরু করেন।

এর আগে গত মাসের শেষের দিকে উইসকনসিন রাজ্যের কেনোশা শহর এক কৃষ্ণাঙ্গকে গুলি করার অভিযোগ ওঠে পুলিশের বিরুদ্ধে। তার মাত্র কয়েকদিন আগেই যুক্তরাষ্ট্রের লুইসিয়ানা অঙ্গরাজ্যে এক কৃষ্ণাঙ্গকে গুলি করে হত্যা করে পুলিশ।

আপনার মন্তব্য জানান